ভাবছেন চুলে কোন কাটিং দিবেন? জেনে নিন কি করবেন

hair

চুল কাটার স্টাইল নিয়ে আমাদের মধ্যে দেখা দেয় অনেক চিন্তা। কি কাটিং দিলে আমাকে ভালো লাগবে। কি হেয়ার কাটিং বন্ধুদের কাছে ভালো লাগবে বা কোন উৎসব অথবা অনুষ্ঠানে নিজেকে সঠিক ভাবে উপস্থাপন করা যাবে ইত্যাদি। এই ব্যাপারটি ছেলে মেয়ে উভয়ের মধ্যে হয়ে থাকে। তবে মেয়েদের মধ্যে একটু বেশি। তবে চুল কাটার পূর্বে যাদ আপনি নিচের কিছু শর্ত মেনে চলতে পারেন তাহলে আপনা আর সংকোচ এর কিছু থাকবে না আশা করি।

* চুল স্টাই করে কাটার আগের প্রথম শর্ত হচ্ছে নিজের মুখের আকৃতি বা চোয়ালের গঠন সর্ম্পকে ধারণা থাকা। কারন সব হেয়ার স্টাই সবাইকে মানায় না। অন্যের কোনো হেয়ার স্টাইল দেখে নিজেও সেই কাটিং দেওয়া ঠিক হবে না কারন ঔ কাটিং টা হয়ত ওনার মুখের গঠনের সাথে মানিয়েছে। কিন্তু আপনার মুখের গঠন তার থেকে ভিন্ন হতে পারে।

* নিজের মুখের আকৃতি কোনো কাগজে বা ছবি তুলে তার মধ্যে পছন্দের মতো হেয়ার স্টাইল এঁকে দেখতে পারেন। ডিম্বাকৃতি মুখ হচ্ছে সব থেকে বেশি আকর্ষণীয়। আর যদি দেখেন গোল দেখাচ্ছে তাহলে বুঝবেন কাটিংটি আপনাকে মানিয়েছে।

* এরপর আপনাকে যেটা জানতে হবে তা হলো নিজের চুলকে। নিজের চুলের গোছ, টেক্সচার ইত্যাদি। আপানার চুল সোজা হলে স্টাইল হবে একরকম এবং কোঁকড়ানো চুলের স্টাইল অন্যরকম। ঠিক তেমনি রুক্ষ্ম এবং মোলায়েম চুলের স্টাইল হবে আলাদা। আপনি সোজা চুলে যে স্টাইল করতে পারবেন, কোঁকড়া চুলে আপনাকে সেটা মানাবে না। রুক্ষ্ম আর মোলায়েম চুলের স্টাইলও এক হবে না কখনওই। তাই হেয়ার এক্সপার্টের সঙ্গে কথা বলেই স্টাইল বাছুন।

* মনে রাখা উচিত যে নিজের সৌন্দর্য্য নিজের মধ্যেই। তাই একজন স্টারের মতো হেয়ারস্টাইল করলেন বলেই আপনাকে দেখতে তাঁর মত মনে হবে এমনটা ভাবতে যাবেন না ভুলেও। অন্ধ অনুকরণ না করে নিজের সঙ্গে মানানসই হেয়ার কাট বেছে নিন।

* ঠিক কি পরিমাণ চুল কাটতে চান সেটা নিশ্চিত হয়ে নিন চুল কাটার আগেই। তা না হলে দেখা যায় অনেকেই চুল কাটার পর আফসোস করতে থাকে। তাই আগেই মন স্থির করে যেইটুকু চুল আপনি কাটতে চান সেই ভাবে বুঝিয়ে বলুন হেয়ার এক্সপাটকে।

Updated: November 11, 2015 — 3:36 pm
bangladeshi women's lifestyle © 2015-2016, ই-মেইলঃ bdnari.com@gmail.com Serverdokan TEAM