কনডম ব্যবহারে যেসব ভুল করছেন আপনি!

bdnari (2)

শুধুমাত্র শারীরিক মিলনের সময় কনডম ব্যবহার করলেই হল, এর বেশি আর কিছু জানার দরকার নেই সেইটাই অনেকে মনে করেন। কিন্তু অনেকেই জানেন না যে কনডম ব্যবহারের সময় তারা বেশ কিছু ভুল করে থাকেন। যার ফলে গর্ভনিরোধক ঠিকমতো কাজ নাও করতে পারে। যেমন-

* অনেকদিনের অব্যবহৃত: অনেক দিনের পরে থাকা কনডম ব্যবহার নিরাপদ নাও হতে পারে। দৈহিক মিলনের সময় যদি দেখেন আপনার সঙ্গী মানিব্যাগ থেকে কনডম বের করছেন, তবে সেটা বাদ দিয়ে নতুন ব্যবহার করুন। কারণ ঘরে পড়ে থাকা বা মানিব্যাগে থাকা কনডমে অযাচিত ঘষা লাগা এবং গরম তাপমাত্রার কারণে কনডমের কার্যকারিতা হারাতে পারে।

* বেশি জায়গা না রাখা: কনডমের সামনের দিকে কিছুটা জায়গা বাড়তি থাকে। যেখানে বীর্য বের হওয়ার পর জমা হয়। বেশি আঁটসাঁট করে পরলে মিলনের সময় কনডম ফুটো হয়ে যেতে পারে বা ফেটেও যেতে পারে। তাই কনডম পরিধানের সময় কনডমের সামনের সরু প্রান্ত চেপে ধরে তারপর পরিধান করুন। এতে ভেতরে বাতাস আটকে থাকার সম্ভাবনা থাকবে না, এবং যথাযথভাবে দৃঢ়ভাবে আটকে থাকবে।

* ভুল মাপ: কারো কারো যৌনাঙ্গ বেশি বড় আবার কারো কারো ছোটও হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনাকে খেয়াল করতে হবে, যেইটির মাপ ঠিকমতো লাগবে সেটা ব্যবহার করা। কারণ বেশি ঢিলা হলে মিলনের সময় কনডম খুলে যেতে পারে আবার বেশি চাপা হলে ফেটে যেতে পারে। তবে বেশিরভাগ কনডমই সঠিক মাপের হয়ে থাকে।

* দেরি করে: মিলনের সময় অনেকেই প্রথম থেকে কনডম ব্যবহার করেন না। তারা মনে করেন একেবারে ‘শেষ পর্যায়ে’ পরে কাজ শেষ করবেন। আর এই ভুলের কারণে অযাচিত গর্ভধারণ এবং যৌনবাহিত রোগ থেকে রক্ষা পাওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। তাই যদি পূর্ণ নিরাপত্তা চান তবে সঙ্গম শুরুর প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত কনডম ব্যবহার করুন

* মেয়াদোত্তীর্ণ: কনডমের নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকে। তবে ব্র্যান্ড ভেদে এক একটির মেয়াদ একেক রকম হয়। অনেক কনডমে লুব্রিকেন্টের অন্যতম একটি উপাদান স্পারমিসাইড এছাড়াও থাকে গরম বা ঠা-া অনুভূতি আনবার উপাদান। এই ধরনের কনডমগুলো অন্যদের তুলনায় একটু আগে মেয়াদ শেষ হয়ে যেতে পারে। তাই যতটা সম্ভব নতুন কনডম ব্যবহার করে নিরাপদ থাকুন।

Updated: December 30, 2015 — 1:06 pm
bangladeshi women's lifestyle © 2015-2016, ই-মেইলঃ bdnari.com@gmail.com Serverdokan TEAM