সুখী দম্পতি হতে সেরা সাতটি কৌশল

bd7744561223৭টি কৌশল অবলম্বনে হতে পারেন সুখী দম্পতিসংসার জীবনের অনেক বছর এক সাথে কাটিয়ে দেবার পরও অনেকেই নিজেদেরকে সুখী দম্পতি হিসেবে দাবী করতে পারে না। দাম্পত্য জীবনে মান-অভিমান, ঝগড়া হতে পারে এটাই স্বাভাবিক। এসব কারনে নিজেকে অসুখী বলে দাবি করাটা ঠিক হবে না। তবে সুখী হওয়াটা কঠিন কিছু নয়। সকল সুখী দম্পতির মত আপনিও হতে পারেন সুখী। কিছু কৌশর অবলম্বন করলে দাম্পত্য জীবনে আপনিও পেতে পারেন সুখ নামের সোনার হরিণ।

১। অহেতুক ঝগড়া বন্ধ করুন : ঝগড়া কোন সমস্যার সমাধান হতে পারে না। ঝগড়া না করে কথা বলে সমাধান করার চেষ্টা করুন।অপরজনের দৃষ্টিভঙ্গি বোঝার চেষ্টা করুন। সঙ্গীর মতামতকে গুরুত্ব দিন।

২। মনোযোগ দিয়ে কথা শুনুন : অসুখী দম্পতি একজন আরেক জনের কথা শোনায় অমনোযোগী থাকে। ফলে তারা একজন আরেকজনের কথার ভুল ধওে ও সমালোচনা করে থাকে। এতে একজন আরেকজনের প্রতি সম্মান হারায়। অপরদিকে একজন সুখী দম্পতি একে অপরে কথা শুনে এবং বোঝার চেষ্টা করে।

৩। একসাথে সময় কাটান : দিনের কিছুটা সময় একসাথে কাটান। তা হতে পারে বাচ্চাদের সাথে এক সাথে খেলা করে বা সাথে নিয়ে ঘুরতে যেয়ে। কিংবা কিছুক্ষণ গল্প করে নিজেরা সময় কাটাতে পারেন।

৪। আলাদা একটা রুম রাখুন : বাড়িতে একটি রুম আলাদা রাখুন যেন ঝগড়া হলে কিছুক্ষণের জন্য আলাদা থাকতে পারেন। এতে একজন আরেকজনকে মিস করবেন। আর এটিই আপনাদেরকে আরো কাছে নিয়ে আসবে। আর নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝিটা দূর হয়ে যাবে।

৫। সৌজন্য পালন করুন : সাধারণত কাছের মানুষের সাথে আমরা কোন প্রকার সৌজন্য করি না। আমরা মনে করি কাছের মানুষের সাথে কিসের সৌজন্য। কিন্তু সম্পর্কে কিছুটা সৌজন্য পালন করা উচিত। দৈনন্দিন কাজে সঙ্গীকে ধন্যবাদ জানান। তা যত ছোট কাজই হোক না কেন।

৬। সঙ্গীর কথা ভাবুন : কোন সিদ্ধান্ত বা কাজ করার আগে সঙ্গীর কথা ভাবুন। এমন কোন কাজ করবেন না যার প্রভাব আপনার সঙ্গীর ওপর পরে। যেকোন সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে তার সাথে আলোচনা করে নিন। অসুখী দম্পত্তি সর্বদা নিজের কথা চিন্তা করে থাকে। পরিবারের সিদ্ধান্ত গুলো একাই নিয়ে থাকে। পরবর্তীতে এই বিষয় নিয়ে সৃষ্টি হয় ঝগড়ার।

৭। মনে রাখুন কিছু সমস্যা রয়ে যাবে : আপনার সাথে আপনার সঙ্গীর সব মত সবসময় এক নাও হতে পারে। এটা মেনে নিন। দুইজন মানুষের চিন্তা, সিদ্ধান্ত সব সময় এক হবে না। এটা মেনে নিন। দেখবেন অনেকখানি ঝগড়া কমে গেছে।

যেকোন সম্পর্কে একে অপরের প্রতি সম্মান থাকাটা জরুরী। সম্মান, ভালবাসা দিয়ে সৃষ্টি হয় একটি সম্পর্ক।  দাম্পত্য সম্পর্কও এর ব্যতিক্রম নয়। নিজেদের মধ্যে বোঝাবুঝিটা ঠিক রাখুন আর বিশ্বাস করুন একে অপরকে। দেখবেন আপনাদের চেয়ে সুখী দম্পতি আর দ্বিতীয়টি খুঁজে পাবেন না।

[ বিঃ দ্রঃ প্রতিদিন মজার মজার রান্নাকরার অসাধারন সব রেসিপি এবং রুপ লাবণ্য টিপস আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিন!

আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিতে এইখানে ক্লিক করুন

Updated: May 5, 2016 — 4:52 pm
bangladeshi women's lifestyle © 2015-2016, ই-মেইলঃ bdnari.com@gmail.com Serverdokan TEAM