যৌন উত্তেজক ওষুধ খাওয়া কি ঠিক? জেনে নিন

bdnari38837u447অনেকেই যৌন মিলনে পরিপূর্ণতা পেতে বিভিন্ন যৌন উত্তেজক ওষুধ খেয়ে থাকেন। কিন্তু এসব যৌন উত্তেজক ওষুধ খাওয়া ঠিক নয়। প্রয়োজনীয় ফিটনেস ব্যায়ামের মাধ্যমেই শরীরটাকে ফিট রাখা যায় এবং কাঙ্খিত ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় রক্ত প্রবাহ তৈরি হয়ে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। ব্যায়াম শুধু শরীর গঠনে সহায়ক তাই নয়, ব্যায়ামে রক্তনালীতে চর্বি জমতে দেয় না। ফলে হার্টের রক্তনালীতে ব্লক সৃষ্টির ঝুঁকি কম থাকে।

পুরুষদের শারীরিক সমস্যার শতকরা ৯০-৯৫ ভাগ মানসিক। আর মানসিক সমস্যার কোন ওষুধের প্রয়োজন হয় না। সামান্য কাউন্সিলিং করলেই সমস্যার সমাধান সম্ভব। বিবাহিত পুরুষদের শারীরিক সমস্যার মধ্যে প্রধান দইটি সমস্যা হচ্ছে ইরেকটাইল ডিসফাংশন ( ইডি) এবং প্রিমসিউর ইজাকুলেশন (পিএমই)। এছাড়াও পুরুষ ও মহিলাদের শারীরিক অন্যান্য সমস্যার রয়েছে যা যৌন জীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে।

তবে ইডি এবং পিএমই এই দুটো শারীরিক সমস্যার ক্ষেত্রে সামান্য চিকিৎসার প্রয়োজন পরে। তবে কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ভায়াগ্রা জাতীয় যৌন উত্তেজক ওষুধ সেবন করা উচিত নয়। ওষুধ ও কাউন্সিলিং এর পাশাপাশি শারীরিক সমস্যার সমাধানে ফিটনেস বেশি প্রয়োজন। অনেক ক্ষেত্রে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কের ক্ষেত্রে উপযুক্ত সময় নির্ধারণ ও যথাযথ পরিবেশ প্রয়োজন।

স্বামী-স্ত্রীর কাঙ্খিত ফলাফলের জন্যও শরীরটাকে ফিট রাখা দরকার। তরুন বয়সে হয়ত শরীর ঠিক না রেখেও ভালো ফল পেয়েছেন। কিন্তু মনে রাখতে হবে বয়স যতই বাড়বে শরীরের ফিটনেস ততই বেশি দরকার। আর শরীর ফিট রাখতে ব্যায়ামের কোন বিক্লপ নাই।

প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট ব্যায়াম করা ভালো। তবে যারা ৫০ থেকে ৬০ মিনিট বা এক ঘন্টা ব্যায়াম করতে পারেন তাদের শরীর বেশি ফিট থাকে। তাই বলে কাঠোর শারীরিক পরিশ্রম অথবা দীর্ঘসময় ব্যায়াম করার অব্যবহিত পরপরই স্বামী-স্ত্রীর সর্ম্পক স্থাপন ঠিক নয়। ব্যায়াম করার সময় শরীরের রক্ত চলাচল বেড়ে যায়,অনেক ক্ষেত্রে খানিকটা রক্ত চাপও বাড়ে।

ব্যায়ামের পর শরীর স্বাভাবিক হতে অন্তত তিনঘন্টা সময় লাগে। ব্যায়াম পুরুষের ফিটনেস দুইভাবে বাড়ায়।
১.    নিয়মিত ব্যায়াম করলে শরীর গঠনে সহায়ক হয় এবং শরীরে এনার্জি বা শক্তি বাড়ে।
২.    নিয়মিত ব্যায়াম করলে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায় এবং রক্তের ভাসমান ভর্তি হ্রাস করে।

সব সময় মনে রাখতে হয় রক্তে চর্বিতে চর্বি যত কম তার ক্ষেত্রে স্বামী-স্ত্রীর মিলনে দীর্ঘসময় লাভে তত সহায়ক। মনে রাখতে হবে পুরুষের মিলনের ক্ষেত্রে একমাত্র রক্ত প্রবাহই মুখ্য ভূমিকা পালন করে। সম্পূর্ণ মানসিক ও শারীরিক প্রস্তুুতি থাকলে রক্ত প্রবাহের মাধ্যমে পুরুষ তার চুড়ান্ত প্রস্তুতি গ্রহন করে। যদি কোন কারনে বিশেষ স্থানে রক্ত প্রবাহ যদি ঠিকমত না হয় অথবা রক্ত প্রবাহিত হবার পর দ্রুত বের হয়ে আসে তাহলেও স্বামী-স্ত্রীর মিলন দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে না।

আর শরীরে রক্ত প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী অন্য কোন রোগ না থাকলে ব্যায়ামের মাধ্যমেই শরীরটাকে ফিট রাখা যায় এবং কাঙ্খিত ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় রক্ত প্রবাহ তৈরি হয়ে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। ব্যায়াম শুধু শরীর গঠনে সহায়ক তাই নয়, ব্যায়াম রক্তনালীতে চর্বি জমতে দেয় না। ফলে হার্টের রক্তনালীতে ব্লক সৃষ্টির ঝুঁকি কম থাকে। তাই বলা যায় যৌন উত্তেজক ওষুধ নয় শুধু ব্যায়ামই যথেষ্ট।

[ বিঃ দ্রঃ প্রতিদিন মজার মজার রান্নাকরার অসাধারন সব রেসিপি এবং রুপ লাবণ্য টিপস আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিন!

আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিতে এইখানে ক্লিক করুন

Updated: August 9, 2016 — 9:39 am
bangladeshi women's lifestyle © 2015-2016, ই-মেইলঃ bdnari.com@gmail.com Serverdokan TEAM